সংবিধানের দ্বিতীয় ভাগ- রাষ্ট্র পরিচালনার মূলনীতি

বাংলাদেশ সংবিধানের মূলনীতি চারটি- জাতীয়তাবাদ, সমাজতন্ত্র(অর্থনৈতিক ও সামাজিক ন্যায়বিচার অর্থে), গণতন্ত্র ও ধর্মনিরপেক্ষতা। ১৯৷ (১) সকল নাগরিকের জন্য সুযোগের সমতা নিশ্চিত করিতে রাষ্ট্র সচেষ্ট হইবেন৷ ১৯।(৩) জাতীয় জীবনের সর্বস্তরে মহিলাদের অংশগ্রহণ ও সুযোগের সমতা রাষ্ট্র নিশ্চিত করিবেন। ২২৷ রাষ্ট্রের নির্বাহী অঙ্গসমূহ হইতে বিচারবিভাগের পৃথকীকরণ রাষ্ট্র নিশ্চিত করিবেন৷

আমাদের সংবিধানের (৮)মূলনীতি চারটি যথা (৯)জাতীয়তাবাদ (১০)সমাজতন্ত্র (১১)গণতন্ত্র ও (১২)ধর্ম নিরপেক্ষতা
(১৩)মালিক ও (১৪)শ্রমিকের (১৫)মৌলিক প্রয়োজনে (১৬)গ্রামীন উন্নয়ন ও কৃষির বিপ্লব ঘটাতে হবে
(১৭)শিক্ষা (১৮)স্বাস্থ্য ও (১৮-ক)পরিবেশ উন্নয়নের (১৯)সুযোগ দিতে হবে
(২০)অধিকার ও কর্তব্য রূপে কর্ম করা প্রত্যেক (২১)নাগরিক ও সরকারি কর্মচারীর কর্তব্য
(২২)নির্বাহী বিভাগ হতে বিচার বিভাগ আলাদা করলে, (২৩)জাতীয় সংস্কৃতি, (২৩-ক)উপজাতীয় সংস্কৃতি, ও (২৪)জাতীয় স্মৃতিনিদর্শন রক্ষা হবে এবং (২৫)আন্তর্জাতিক অঙ্গনে শান্তি প্রতিষ্ঠিত হবে

৮৷ মূলনীতিসমূহ
৯। জাতীয়তাবাদ
১০। সমাজতন্ত্র ও শোষণমুক্তি
১১৷ গণতন্ত্র ও মানবাধিকার
১২। ধর্ম নিরপেক্ষতা ও ধর্মীয় স্বাধীনতা
১৩৷ মালিকানার নীতি
১৪৷ কৃষক ও শ্রমিকের মুক্তি
১৫৷ মৌলিক প্রয়োজনের ব্যবস্থা
১৬৷ গ্রামীণ উন্নয়ন ও কৃষি বিপ্লব
১৭৷ অবৈতনিক ও বাধ্যতামূলক শিক্ষা
১৮৷ জনস্বাস্থ্য ও নৈতিকতা
১৮ক। পরিবেশ ও জীব-বৈচিত্র্য সংরক্ষণ ও উন্নয়ন
১৯৷ সুযোগের সমতা
২০৷ অধিকার ও কর্তব্যরূপে কর্ম
২১৷ নাগরিক ও সরকারী কর্মচারীদের কর্তব্য
২২৷ নির্বাহী বিভাগ হইতে বিচার বিভাগের পৃথকীকরণ
২৩৷ জাতীয় সংস্কৃতি
২৩ক। উপজাতি, ক্ষুদ্র জাতিসত্তা, নৃ-গোষ্ঠী ও সম্প্রদায়ের সংস্কৃতি
২৪৷ জাতীয় স্মৃতিনিদর্শন, প্রভৃতি
২৫৷ আন্তর্জাতিক শান্তি, নিরাপত্তা ও সংহতির উন্নয়ন

সম্পূর্ণ ধারা দেখতে ভিজিট করুন- গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধান

প্রস্তাবনা
প্রথম ভাগ- প্রজাতন্ত্র

তৃতীয় ভাগ- মৌলিক অধিকার

চতুর্থ ভাগ-নির্বাহী বিভাগ

পঞ্চম ভাগ-আইনসভা
১ম পরিচ্ছেদ-সংসদ
২য় পরিচ্ছেদ-আইন প্রনয়ন ও অর্থসংক্রান্ত পদ্ধতি
৩য় পরিচ্ছেদ-অধ্যাদেশপ্রণয়ন-ক্ষমতা

ষষ্ঠ ভাগ- বিচারবিভাগ

সপ্তম ভাগ- নির্বাচন

অষ্টম ভাগ- মহা হিসাব-নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক

নবম ভাগ-বাংলাদেশের কর্মবিভাগ

দশম ভাগ-সংবিধান-সংশোধন

একাদশ ভাগ- বিবিধ

তফসিল

Add a Comment