ন্যাম(NAM)

Non-Aligned Movement(NAM) বা জোট নরপেক্ষ আন্দোলন বিভিন্ন দেশের একটি আন্তর্জাতিক সংগঠন। যা ১২০ টি দেশ নিয়ে গঠিত। সর্বশেষ সদস্য হিসাবে ফিজি আজারবাইজান যোগ দেয়(2011)। ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তায় এর সদর দপ্তর অবস্থিত।

১৯৫৫ সালে ইন্দোনেশিয়ার বান্দুং সম্মেলনের মাধ্যমে NAM গঠনের ফোরাম সৃষ্টি হয়। এতে অংশগ্রহণ করে ২৫টি দেশ। পরবর্তীতে ১৯৫৬ সালে যুগোশ্লাভিয়ার ব্রিয়নিতে সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। তৎকালীন যুগোস্লাভিয়ার (১৯৯০ এর দশকের প্রথমের দিকে যুগোশ্লাভিয়া ভেঙ্গে পাঁচটি নতুন রাষ্ট্রের সৃষ্টি হয়।) রাজধানী বেল্গ্রেডে ১৯৬১ সালে NAM এর প্রথম সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এর প্রথম চেয়ারম্যান ছিল Josip Broz Tito।

১৯৭২ সালে বাংলাদেশ NAM এর সদস্য পদ লাভ করে।

তিন বছর পর পর NAM এর শীর্ষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ১৭ তম সম্মেলন হয় ভেনিজুয়েলার পরল্যামার শহরে। বর্তমান চেয়ারম্যান ভেনিজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকলাস মাদুরো।

The purpose of the organization has been enumerated as to ensure “the national independence, sovereignty, territorial integrity and security of non-aligned countries” in their “struggle against imperialism, colonialism, neo-colonialism, racism, and all forms of foreign aggression, occupation, domination, interference or hegemony(বিশেষত অনেকগুলো রাষ্ট্রের মাঝে একটি রাষ্ট্রের নেতৃত্ব, কর্তৃত্ব, ও প্রভাব, আধিপত্য, প্রভুত্ব) as well as against great power and bloc politics,”

In the years since the Cold War’s end, it has focused on developing multilateral ties and connections as well as unity among the developing nations of the world, especially those within the Global South.

The founding fathers of the Non-Aligned Movement were Josip Broz Tito of Socialist Yugoslavia, First Prime minister of India Jawaharlal Nehru , Sukarno of Indonesia, second president of Egypt Gamal Abdul Nasser and Kwame Nkrumah of Ghana. Their actions were known as ‘The Initiative of Five’.

Nehru described the five pillars to be used as a guide for Sino-Indian relations called Panchsheel(পঞ্চশীলা নীতি) (five restraints), these principles would later serve as the basis of the Non-Aligned Movement. The five principles were:

Mutual respect for each other’s territorial integrity and sovereignty.
Mutual non-aggression.
Mutual non-interference in domestic affairs.
Equality and mutual benefit.
Peaceful co-existence.

The Non-Aligned Movement celebrated its 50th anniversary in Belgrade on 5–6 September 2011

Add a Comment