দিনাজপুর


দিনাজপুর জেলা

বিষয় তথ্য
পূর্ব নামঃ পূর্বে এই এলাকায় মূর্খ লোকদের বসবাস ছিল যাদের আঞ্চলিক ভাষায় গন্ড বলা হত। এজন্য এই এলাকাকে গন্ডোয়ানাল্যান্ড বলা হত।
অবস্থানঃ দিনাজপুর পূর্ণভবা নদীর তীরে অবস্থিত
উল্লেখযোগ্য ব্যাক্তিত্বঃ অধ্যাপক ইউসুফ আলী (স্বাধীনতার সনদ পাঠক); হাজী মোহাম্মদ দানেশ ; বেগম খালেদা জিয়া
অর্থকরী ফসলঃ কাটারী ভোগ, কালাজিরা চাল, চিড়া, আম ও লিচুর জন্য এই জেলা বিশেষভাবে পরিচিত। এছাড়াও ধানচাষ নির্ভর এই জেলা দেশের সিংহভাগ চালের যোগান দেয়। এজন্য দিনাজপুরকে দেশের শষ্য ভান্ডার বলা হয়।
খনিজ পদার্থঃ পার্বতীপুর উপজেলার বড়পুকুরিয়ায় রয়েছে একটি কয়লাখনি; মধ্যপাড়া কঠিন শিলা
দর্শনীয় স্থানঃ কান্তজীর মন্দির; রামসাগর (রামপাল) ; সীতাকোট বিহার; স্বপ্নপূরী
উল্লেখযোগ্য প্রতিষ্ঠানঃ গম গবেষণা কেন্দ্র(কাশিপুর); বড়পুকুরিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র; বাংলাদেশের প্রথম কয়লা শোধনাগার হল বিরামপুর হার্ড কোক লিমিটেট
নদ-নদীঃ মহানন্দা, ডাহুক, আত্রাই
অন্যান্য তথ্যঃ ২টি স্থল বন্দর (হিলি ও বিরল); ১৯৪৭ সালে বঙ্গভঙ্গের সময়ে দিনাজপুরের একটি বড় অংশ পশ্চিমবঙ্গে চলে যায় এবং তার নাম হয় পশ্চিম দিনাজপুর জেলা।

<- ঠাকুরগাঁও
রংপুর ->