ঢাকা


ঢাকা জেলা

বিষয় তথ্য
পূর্ব নামঃ মুঘল সম্রাট জাহাঙ্গীরের শাসনামলে এই শহর জাহাঙ্গীর নগর নামে পরিচিত ছিলো।
পরিচিতিঃ এটি বিশ্বের নবম বৃহত্তম এবং সর্বাপেক্ষা জনবহুল শহরগুলির মধ্যে অন্যতম। ঢাকা শহরটি মসজিদের শহর নামেও পরিচিত। এখানে বিশ্বের সেরা মসলিন উৎপাদিত হয়। এছাড়া ঢাকা বিশ্বের রিক্সার রাজধানী নামেও পরিচিত। বাংলাদেশের সংবিধানের ৫(ক) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী বাংলাদেশের রাজধানী।
অবস্থানঃ বুড়িগঙ্গা নদীর তীরে
ঐতিহাসিক স্থানসমূহ: লালবাগ কেল্লা, আহসান মঞ্জিল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ হল, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, শাঁখারিবাজার, হোসেনী দালান, ছোট কাটরা, বড় কাটরা, কার্জন হল, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ভবন (পুরাতন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কলা ভবন), ঢাকেশ্বরী মন্দির, তারা মসজিদ, মীর জুমলা গেট, পরীবিবির মাজার
পার্ক , বিনোদন ও প্রাকৃতিক স্থানঃ রমনা পার্ক, বাহাদুর শাহ্‌ পার্ক- জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, সোহ্‌রাওয়ার্দী উদ্যান, বোটানিক্যাল গার্ডেন, ঢাকা শিশু পার্ক, বুড়িগঙ্গা নদী, ঢাকা চিড়িয়াখানা, বাংলাদেশ জাতীয় যাদুঘর, মুক্তিযুদ্ধ যাদুঘর, বলধা গার্ডেন
স্মৃতিসৌধ ও স্মারকঃ জাতীয় শহীদ মিনার, শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধ, (রায়ের বাজার), অপরাজেয় বাংলা-ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় গুচ্ছ ভাস্কর্য আসাদ গেইট
আধুনিক স্থাপত্যঃ জাতীয় সংসদ ভবন, বাংলাদেশ ব্যাংক ভবন, ভাসানী নভো থিয়েটার, বসুন্ধরা সিটি, যমুনা বহুমুখী সেতু, যমুনা ফিউচার পার্ক, মেয়র হানিফ ফ্লাইওভার, শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ।
উল্লেখযোগ্য প্রতিষ্ঠানঃ রমনায় সচিবালয় অবস্থিত এবং এখানেই সরকারের প্রায় সকল মন্ত্রণালয় রয়েছে। বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্ট এবং ঢাকা হাই কোর্ট এই শহরে অবস্থিত। বঙ্গভবন ভারতের গভর্নর-জেনারেল, পূর্ব পাকিস্তান গভর্নর এবং বর্তমানে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতির বাসভবন হিসাবে ব্যবহৃত হচ্ছে। সিটি সেন্টার বাংলাদেশ হল ঢাকার সবচেয়ে উঁচু অট্টালিকা এই শহরের ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ দেশের অন্যতম বৃহত স্টক এক্সচেঞ্জ। হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, ঢাকা শহরের কেন্দ্রে থেকে মাত্র ১৫ কিলোমিটার উত্তরে অবস্থিত, এটি দেশের বৃহত্তম এবং ব্যস্ততম বিমানবন্দর। ঢাকা শহরের পানির চাহিদা পূরণের জন্য ঢাকা ওয়াসা, বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন বা বিদ্যুৎ সরবরাহ করার জন্য ডেসা এবং ডেসকো, গ্যাস সরবারহ করার জন্য তিতাস গ্যাস প্রভৃতি সেবামূলক সংস্থা নিয়োজিত রয়েছে।
নদ-নদীঃ বুড়িগঙ্গা , তুরাগ, বালু, বংশী ইছামতি, বাকল্যান্ড বাঁধ বুড়িগঙ্গা নদীর তীরে। এটি ধলেশ্বরীর শাখা নদী।
জাদুঘরঃ জাতীয় জাদুঘর- শাহাবাগ।
জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর- আগারগাঁও ।
ভাষা আন্দলন জাদুঘর – বাংলা একাডেমি।
মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর- সেগুনবাগিচা।
মুক্তিযুদ্ধ বিজয় কেতন- সেনানিবাস।
লোক-ঐতিহ্য জাদুঘর – বাংলা একাডেমি।
জাতীয় সাহিত্য ও লেখক জাদুঘর- বাংলা একাডেমি।
বাংলাদেশ রাইফেলস জাদুঘর-পিলখানা।
সামরিক জাদুঘর- বিজয় সরণি ।
পোস্টাল জাদুঘর- জিপিও ভবন গুলিস্তান ।
বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর – ধানমন্ডি ।
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব জাদুঘর – ঢাকা সেনানিবাস ।
ঢাকার প্রথম ঢাকার প্রথম নির্বাক চলচ্চিত্র : ১৯৩১ সালে নির্মিত ঢাকার প্রথম পূর্ণাঙ্গ নির্বাক চলচ্চিত্র দি লাস্ট কিস। ঢাকার প্রথম মুদ্রণযন্ত্র বাংলা মুদ্রণযন্ত্র। মুদ্রণযন্ত্রটি ঢাকায় ১৮৬০ সালে স্থাপন করা হয়। ঢাকার প্রথম সংবাদপত্র ঢাকা নিউজ। ঢাকা থেকে প্রকাশিত প্রথম বাংলা সংবাদপত্র ঢাকা প্রকাশ।
অন্যান্য তথ্যঃ ঢাকা নগরীকে বর্তমানে বর্তমানে দুইভাগে বিভক্ত করা হয়েছে – ঢাকা দক্ষিণ ও ঢাকা উত্তর। ঢাকা দক্ষিণই মূলতঃ মূল নগরী। ঢাকা উত্তর ঢাকার নবীন বর্ধিত উপশহরগুলো নিয়ে গঠিত। বেইলি রোডকে নাটকপাড়া বলা হয় সেখানকার নাট্যমঞ্চগুলোর জন্য।

রাজবাড়ী ->